dannews24.com | logo

১লা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | ১৫ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

দুপচাঁচিয়ায় আওয়ামীলীগ নেতার নামে সেটেলমেন্ট অফিসে চাঁদা দাবীর অভিযোগ

প্রকাশিত : নভেম্বর ২৩, ২০২০, ২১:৩৮

দুপচাঁচিয়ায় আওয়ামীলীগ নেতার নামে সেটেলমেন্ট অফিসে চাঁদা দাবীর অভিযোগ

মোছাব্বর হাসান মুসা,বগুড়া প্রতিনিধিঃ দুপচাঁচিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতার নামে সেটেলমেন্ট অফিসে চাঁদা দাবীর ২টি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার দুপচাঁচিয়ায় দাখিলকৃত প্রাপ্ত ২টি অভিযোগ থেকে এই তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে যে দুপচাঁচিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুর রাজ্জাক টিপুসহ আরো অজ্ঞাত নামার মধ্যে সহিদুল ইসলাম নামের এক তথাকথিত সংবাদদাতার পরিচয় দিয়ে অফিস সহায়ক সামছুন নাহার এর নিকট ১০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। তার চাঁপা চাপিতে সেই সময় ১০হাজার টাকা দিতে না পারায় তাকে ভয়ভিতি দেখিয়ে তার কাছ থেকে ১ হাজার টাকা কাড়িয়া নেয় বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে গত ১৮ নভেম্বর ২০২০ ইং তারিখ রোজ বুধবার দিন দুপুর ১২.৩০ মিঃ এর সময় কইল গ্রামের মৌজার প্রিন্ট পরচা প্রদান কালে ৪/৫ জন বিবাদিরা অসৎ উদ্দেশে তার নিকট ১০হাজার টাকা চাঁদা দাবি কওে ও সরকারি কাজে বাঁধা প্রদান করে। চাঁদা না পেয়ে অকথ্য ভাষায় গালি গালাজ করে।সেই সময় বাদী চিৎকার করে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে টিপু ও সাংবাদিক নামধারী সহিদুল তার কাছ থেকে ১হাজার টাকা কাড়িয়া নেয়। এ ঘটনায় উপজেলা সেটেলমেন্ট কর্মকর্তার সাথে কথা বলে জানা যায় ঘটনাটি সত্য। তিনি এ বিষয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য উদ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট অভিযোগ করেছেন।

অপর দিকে চাঁদার দাবি করা সন্ত্রাসী ও জনৈক সাংবাদিক এর নামে তালোড়া কইল এলাকার জনগন প্রিন্ট পরচা না পেয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে মানব বন্ধকরাসহ চাঁদা বাজদের বিচারের দাবিতে আরও একটি অভিযোগ দায়ের করেন তালোড়া ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান ও সদস্য অশোক কুমার দেব। তিনি একই অভিযোগ করে তার সাথে তালোড়া এলাকার শতাধিক জনগনের স্বাক্ষরসহ অভিযোগ এর কপি উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সহকারি কমিশনার ভূমি, অফিসার ইনচার্জ দুপচাঁচিয়া থানা, উপজেলা সেটেলমেন্ট অফিসার ও উপজেলা সাব রেজিষ্টার দুপচ^াচিয়া এর নিকট দাখিল করেছেন।

উলেলখ্য যে চাঁদা দাবি কারক নিজেকে দুপচাঁচিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ এর প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক দাবি করেন তিনি সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের মুহরার হিসেবে নিয়োজিত রয়েছে। সাব রেজিস্ট্রার বলেন ঘটনাটি সত্য হলে ও তদন্তে সত্য উদঘাটন হলে তার লাইন্সিন বাতিল করা হতে পারে।

এ বিষয়ে অভিযোগ এর কথা বললে আব্দুর রাজ্জাক টিপু বলেন আমার বিষয়ে সকল অভিযোগ মিথ্যা সঠিক নয়। তারা পরচা দিয়ে টাকা নিচ্ছেন তাই নিষেধ করা হয়েছে। এবং সরকারি রেটে টাকা নিয়ে পরচা প্রদান করতে বলা হয়েছে। অপর জনের নিকট জানতে চাইলে তার মোবাইল ফোন ২টি বন্ধ পাওয়া গেছে।






অফিস: হোল্ডিং#৩৫৯,রোড# ৮/২ মধ‍্য সরদারপাড়া, দুপচাঁচিয়া, বগুড়া।

সম্পাদক ও প্রকাশক: মো: মোছাব্বর হাসান মুসা। 01711366298/01812550877 mushanews2011@gmail.com

নির্বাহী সম্পাদক
ইমরানুল হাসান (বি এ অনার্স) ম‍্যানেজমেন্ট।

 

বার্তা সম্পাদক: মো:জাকারিয়া হাসান। 01796032336

মহিলা সম্পাদিকা: মোনিকা আক্তার মালা। ( বিএ অর্নাস) রাষ্ট্রবিজ্ঞান।