dannews24 | logo

৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

বগুড়ার শেরপুরে  টাকা নেয়ার ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন, মিথ্যা ও ভিত্তিহীন দাবি করে নয় ইউপি সদস্যদের সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত : আগস্ট ০৮, ২০২০, ১৩:৫৫

বগুড়ার শেরপুরে  টাকা নেয়ার ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন, মিথ্যা ও ভিত্তিহীন দাবি করে নয় ইউপি সদস্যদের সংবাদ সম্মেলন

শেরপুর (বগুড়া) প্রতিনিধি:বগুড়ার শেরপুর উপজেলার খানপুর ইউনিয়নে প্রতিবন্ধী, মাতৃত্বকালীন ও বিধবা ভাতাভোগীদের নিকট থেকে ঘুষ নেয়ার অভিযোগের বিষয়টি খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা মো. আব্দুল জলিলকে আহবায়ক করে তিন সদস্য বিশিষ্ট এই তদন্ত কমিটি করা হয়। গঠিত কমিটির বাকি দুইজন হলেন- উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা সুর কুমার পাল ও একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্পের কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. লিয়াকত আলী সেখ এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, ইতিমধ্যে তদন্ত কমিটির সদস্যরা কাজ শুরু করেছেন। দ্রুততম সময়ের মধ্যে তাদের প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। আর এই তদন্ত প্রতিবেদন হাতে এলেই পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এদিকে ভাতাভোগীদের নিকট থেকে ঘুষ নেয়ার বিষয়টিকে মিথ্যা ও ভিত্তিহীন দাবি করে ওই ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।

গতকাল শনিবার (০৮আগস্ট) দুপুরে শহরের স্থানীয় বাসষ্ট্যান্ডস্থ শেরপুর প্রেসক্লাব কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য রাখেন উপজেলার খানপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ইউপি সদস্য মো. খলিলুর রহমান। তিনি বলেন, স্থানীয় কয়েরখালী বাজারস্থ ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন বহুতল মসজিদ ও হাফেজিয়া মাদ্রাসা নির্মিত হচ্ছে। এলাকাবাসীর সার্বিক সহযোগিতা ও তাদের দানের টাকায় ধর্মীয় এই প্রতিষ্ঠান নির্মাণ কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে চলেছে। অত্র ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম রাঞ্জুর ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় এই মসজিদ-মাদ্রাসা নির্মাণ কাজে এলাকার প্রায় সব মানুষই স্বেচ্ছায় সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছেন। এরই ধারাবাহিকতায় বেশকিছু ভাতাভোগী সদস্য ভালো কাজে অংশ নিতে স্বেচ্ছায় সাধ্যনুযায়ী টাকা দান করেছেন। আর মসজিদ পরিচালনা কমিটির লোকজন রশিদ মূল্যে সেই টাকা গ্রহণ করেছেন। এক্ষেত্রে চেয়ারম্যান ও আমার কোন সংশ্লিষ্টতা নেই। অথচ এই ঘটনাটিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য একটি কু-চক্রীমহল নানামুখি ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছেন। আমাদের সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতেই ঘুষ নেয়ার মিথ্যা অভিযোগ এনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালনের নামে সাজানো ও কল্পিত নাটক মঞ্চস্থ করা হয়। এহেন কর্মকা-ের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে আ.লীগ নেতা খলিলুর রহমান আরও বলেন, তার ইউনিয়নে ভাতাভোগীদের নিকট থেকে কোন ঘুষ নেয়ার ঘটনা ঘটেনি। তারা স্বেচ্ছায় ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান নির্মাণ কাজে দান করেছেন। তাই এটি নিয়ে রাজনীতি করা ঠিক নয়। এরপরও অভিযোগ ওঠায় ভাতাভোগীদের দানের টাকা ফেরৎ দেয়া হয়েছে বলে দাবি করেন তারা।

উক্ত সংবাদ সম্মেলনে ইউপি সদস্য মোজাফ্ফর রহমান, রেজাউল করিম, ফরিদ উদ্দীন, আজিজুল হক, নুরুল ইসলাম নুরু, ওমর আলী, ফুলেরা খাতুন, রানু বালা প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন। প্রসঙ্গত: গত ০৩আগস্ট উপজেলার খানপুর ইউনিয়নের কয়েরখালী বাজার এলাকায় ইউপি চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম রাঞ্জু এবং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও খলিলুর রহমানের বিরুদ্ধে প্রতিবন্ধী, মাতৃত্বকালীন ও বিধবা ভাতাভোগীদের নিকট থেকে এক হাজার দশ টাকা করে ঘুষ নেয়ার অভিযোগ এনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়। খানপুর সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচি থেকে ঘটনায় জড়িতদের বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিও দাবি করেন বক্তারা।




About Us

COLORMAG
We love WordPress and we are here to provide you with professional looking WordPress themes so that you can take your website one step ahead. We focus on simplicity, elegant design and clean code.