dannews24.com | logo

৯ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২৫শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

রাজশাহী মৌগাছী বাজারে নেই কোন নৈশপ্রহরী: নির্ঘুম দোকান মালিকরা

প্রকাশিত : আগস্ট ২৭, ২০২০, ১৩:৪৭

রাজশাহী মৌগাছী বাজারে নেই কোন নৈশপ্রহরী: নির্ঘুম দোকান মালিকরা

সানোয়ার আরিফ রাজশাহীঃ প্রশাসন ও কর্তৃপক্ষের উদাসিনতায় দিন দিন বেড়ে চলেছে চুরি ছিনতায় আর অরাজকতা। রাজশাহীর মোহনপুর থানার মৌগাছী বাজার যেন তাসের ঘর। মূল্যহীন হয়ে পড়ছে এই বাজারটি। বাজারে নেই কোন নৈশ্যপহরী। চরম দুশ্চিন্তাই রয়েছে বাজারের দোকান মালিক ও ব্যাবসায়ীরা। বাংলাদেশে পানের জন্য বিখ্যাত মোহনপুর, আর পানের জন্য অন্যতম এই মৌগাছী বাজার। মৌগাছী বাজার শুধু পানই নয় এখানে সকল নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্র পাওয়া যায় সব সময়। এই বাজারে দোকানপাট রয়েছে ছোট-বড় সব মিলিয়ে ২৫০-৩০০টা। সপ্তাহে চারদিন হাটবার হলেও সপ্তাহের সাত দিনই চলে রমরমা ব্যাবসা । এ হাটে আশেপাশের এলাকার অন্তত কয়েক হাজার মানুষ জীবিকা নির্বাহ করে। বছরে লক্ষ লক্ষ টাকা রাজস্ব পায় সরকার। এই বাজারে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসে ব্যাবসা বানিজ্যের জন্য। কিন্তু এ বাজারে বিগত ৪-৫ বছর যাবৎ নেই কোন নৈশপ্রহরী। হরহামেশাই ছিচকে চোরেরা চুরি করে এ হাটে। আবার মাঝে-মধ্যে বড় ধরনের চুরির ঘটনাও ঘটে। গত ২১ আগষ্ট ২০২০ তারিখে বেলগাছী গ্রামের আলহাজ্ব মোঃ আকবর আলী মাস্টারের ছেলে মোঃ ইকবাল হোসেন (৩৮) এর মৌগাছি বাজারে ‘মেসার্স ইকবাল হার্ডওয়ার এন্ড ইলেকট্রনিক্স’ দোকানে দিবাগত রাতে চুরি হয়। এরকম আরও চুরির ঘটনা রয়েছে এই বাজারে।
এবিষয়ে মৌগাছী বাজারের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক দোকান মালিক বলেন, এই বাজারে আগে নৈশ্যপ্রহরী ছিলো কিন্তু বর্তমান চেয়ারম্যান ক্ষমতায় আসার পর থেকে এখানে আর নৈশ্যপ্রহরী থাকেনা। কারন জানতে চাইলে তারা বলেন, এই বাজারে সন্ধ্যার পর থেকে শুরু হয় মাদকে আসর। নৈশ্যপহরী থাকলে তাদের জন্য বাধা হয়। আর এই মাদকের সাথে জড়িত ৪ নং মৌগাছী ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান। মৌগাছী বাজারের পশ্চিম পাশে তাদের আড্ডা ও আসর বসার জন্য নির্দিষ্ট ক্লাব ঘর করেছে। আপনারা চাইলে সন্ধ্যার পরে এসে দেখতে পারেন তাহলে মিলবে সত্তিকারের তথ্য।
বাজারে চুরি ছিনতায় এর বিষয়ে মোহনপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ মোস্তাক বলেন, আমাদেও লোকবল চাহিদার চেয়ে অনেক কম। তারপরও টহল টিম রেখেছি । টহল টিম তো সবসময় থাকবে না। আমি শুনেছি বাজারে নাকি নৈশ্যপ্রহরী নাই। আমি বাজার কমিটির সভাপতি ৪ নং মৌগাছী ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যানের সাথে কথা বলেছি। ঐ বাজারের নৈশ্যপ্রহরী দেওয়ার জন্য। আর আমরা চেষ্টা করছি চোরের এই সিন্ডিকেটাকে ধরার জন্য।

Facebook Comments

অফিস: হোল্ডিং#৩৫৯,রোড# ৮/২ মধ‍্য সরদারপাড়া, দুপচাঁচিয়া, বগুড়া।




সম্পাদক ও প্রকাশক: মো: মোছাব্বর হাসান মুসা।

নির্বাহী সম্পাদক
ইমরানুল হাসান (বি এ অনার্স) ম‍্যানেজমেন্ট।

 

বার্তা সম্পাদক: মো:জাকারিয়া হাসান।

মহিলা সম্পাদিকা: মোনিকা আক্তার মালা।