dannews24.com | logo

১২ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২৮শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় সরকারি চাকুরিজীবি র‌্যাব জাফর ইকবাল এর নামে বাড়ী জবর দখল ও ভাংচুরের মামলা

প্রকাশিত : আগস্ট ২৮, ২০২০, ০৪:২৩

বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় সরকারি চাকুরিজীবি র‌্যাব জাফর ইকবাল এর নামে বাড়ী জবর দখল ও ভাংচুরের মামলা

দুপচাঁচিয়া বগুড়া থেকে ম, হাসান মুসাঃ বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় সরকারি চাকুরিজীবি র‌্যাব জাফর ইকবাল এর নামে বাড়ী জবর দখলের মামলা দায়ের করেন তার গ্রামের নিকট আত্বিয় ভগ্নিপতি বদরুল ইসলাম বুলু।

ঘটনার সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, জাফর ইকবাল তার ভগ্নিপতির ভাই হবিবর এর অংশ ক্রয় করেন। কিন্ত তার আপন ভগ্নিপতি বুলুর অংশ বের করে না দিয়ে তার বাড়ীর ভিতরের অংশ জবর দখল করেছেন মর্মে নাম না বলার শর্তে জনৈক গ্রামবাসি সাংবাদিকদের জানান। তার উক্ত জায়গা সম্পত্তি জবর দখল করে নেয়ার জন্য র‌্যাব সদস্য জাফর ইকবাল কে জিজ্ঞাসা করা হলে সে উক্ত বিষয়টি এড়িয়ে যান। সেনাবাহিনীর সদস্য থেকে র‌্যাব এর যোগদান করার পর থেকে জাফর ইকবাল তার স্ত্রীর নামে তার নামে ও তার শ্বশুর শ্যালকের নামে অনেক সম্পত্তি ক্রয় করেন বলেও গ্রামবাসি জানান। তার স্থায়ী সম্পদের হিসেব নিলে বুঝা যাবে যে এত অল্পসময়ে কিভাবে এত বাসা বাড়ী জমি ও স্ম্পদের মালিক হলেন।

ছামছুল হবিবর ও বুলু তার খালা রূপজান বেওয়ার সম্পত্তির ওয়ারিশ হিসেবে মালিক হন। তাদের মধ্যে থেকে জাফর ইকবাল ওরফে মেহেদী এক জনের অংশ ক্রয় করে মালিক হন। কিন্ত বুলুর অংশ ৯৯১ সাবেক দাগ হাল দাগ২৬৯৪ এর ১১ ,তক সম্পত্তি রয়েছে। ৯৯১/২৬৯৮ দাগে ১০ শতক সম্পত্তি রেকড হয়। তাতে মোট সম্পত্তি ২১ শতক।

২১ শতক জমি ৩ ভাই মালিক হলে ২ ভাই এর অংশ ১৪ শতক জাফর মালিক হন। কিন্ত জাফর তার আপন ভগ্নিপতির সাথে আপস না করে গোটা ২১ শতকের অংশ জোর জবর দখল করে নিয়ে তার ক্ষমতাবলে প্রাচীর নির্মান করেছে। বুলুর অংশ বাড়ী ও মাটির ঘরটি জোন পূর্বক ভেঙ্গে ফেলেছে সে। তার ক্ষমতার সাথে আপন ভগ্নিপতি বদরুল আলম বুলু না পেরে তিনি বাদী হয়ে গত ২৫ আগস্ট জেলা বগুড়া দুপচাঁচিয়া থানা সহকারি জজ আদালতে ৭৫/২০ উচ্ছেদ মামলা দায়ের করেন। মামলাটি শুনানী অন্তে মাননীয় আদালত ১০ দিনের মধ্যে কারন দর্শানোর নোটিশ জারি করেন।

অপর দিকে জাফর ইকবাল ওরফে মেহেদী কে প্রধান আসামী করে জেলা বগুড়া দুপচাঁচিয়া থানার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলী আদালতে ১৪জন কে আসামী করে ১১৫সি/২০(দুপঃ) মামলা দায়ের করেছেন। মামলাটি বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধিন রয়েছে। কিন্ত এতকিছু উপেক্ষা করে জাফর তার ক্ষমতার দাফট দেখিয়ে বাড়ী ভেঙ্গে নির্মাণ কাজ করতেছে। এ বিষয়ে তাকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি জানান আমার ক্রয়করা সম্পত্তিতে আমি নির্মাণ কাজ করিতেছি। ইতি পূর্বে জমি ক্রয় করার সময়ে সরকারি ট্রাক্স ফাকি দিয়ে কম মূল্যে দুপচাঁচিয়া পৌরসভার মধ্যে ৮ শতক জমি ক্রয় করার কথা বললে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেন। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সদয় দৃষ্টি দেয়া প্রয়োজন।

Facebook Comments

অফিস: হোল্ডিং#৩৫৯,রোড# ৮/২ মধ‍্য সরদারপাড়া, দুপচাঁচিয়া, বগুড়া।




সম্পাদক ও প্রকাশক: মো: মোছাব্বর হাসান মুসা।

নির্বাহী সম্পাদক
ইমরানুল হাসান (বি এ অনার্স) ম‍্যানেজমেন্ট।

 

বার্তা সম্পাদক: মো:জাকারিয়া হাসান।

মহিলা সম্পাদিকা: মোনিকা আক্তার মালা।