dannews24.com | logo

৭ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২৩শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

সাংবাদদিকতার ৫ হাজার বছরের ইতিহাস পাল্টে গেলো রোবটিক জার্নালিজমের জন্য কতটা প্রস্তুত আপনি ? :: এফ শাহজাহান ::

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ১২, ২০২০, ১৫:১১

সাংবাদদিকতার ৫ হাজার বছরের ইতিহাস পাল্টে গেলো রোবটিক জার্নালিজমের জন্য কতটা প্রস্তুত আপনি ? :: এফ শাহজাহান ::

এফ শাহজাহান,ডিরেক্টর,স্কুল অব জার্নালিজম: একেই বলে বিপ্লব। একবারে সবকিছু আমুল পাল্টে ফেলা। দীর্ঘ ৫ হাজার বছরের ইতিহাস পাল্টে দিয়ে একেবারে নতুন এক টেকনিক ও টেকনোলজি শুর হলো সাংবাদিকতায়। আজ থেকে রোবটরাই শুরু করলো সাংবাদিকতা।

পৃথিবীর শুরু থেকে এখন পর্যন্ত এতোদিনকার ইতিহাসে শুধু মানুষেরাই সাংবাদিকতা করেছেন। এখন থেকে সাংবাদিকতা করবেন রোবট। করবেন মানে অলরেডি শুরু করেছেন।তাও আবার শুধু সাদামাটা রিপোর্টিং নয়। একেবারে জাঁদরেল বুদ্ধিজীবীর মত কলাম লেখা শুরু করেছে রোবট।

সাংবাদিকতায় এটা একেবারে নতুন এক ইতিহাস রচনা করলো বৃটেনের দৈনিক গার্ডিয়ান পত্রিকা । রোবটকে দিয়ে উপ-সম্পাদকীয় লিখিয়ে রোবটিক জার্নালিজমের নতুন ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে রইল দ্য গার্ডিয়ান।

বুদ্ধিজীবী এবং সাংবাদিক রোবটের নাম জিপিটি-৩। দ্য গার্ডিয়ান পত্রিকা কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছেন যে,জিপিটি-৩ রোবটকে বলা হয়েছিল, মোটামুটি ৫শ শব্দে একটি উপ-সম্পাদকীয় লিখে দিতে। প্রাঞ্জল ভাষার সঙ্গে সার কথা ধরে রেখে।

এরপর কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা অর্থ্যাৎ আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স নিয়ে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে ওপেনএআই ল্যাঙ্গুয়েজ জেনারেটর জিপিটি-৩ লিখেছিল আলাদা আলাদা আটটি রচনা; এর প্রতিটি লেখার ধরনেই ভিন্নতা ছিল।

প্রথাগত অনলাইন সাংবাদিকতার যুগ শেষ হয়েছে ১০ বছর আগে। এরপর এ্যাডভান্স জার্নালিজমের টেকনোলজি নিয়ে ২০১০ সালে যাত্রা শুরু হয় মাল্টিমিডিয়া জার্নালিজমের অগ্রযাত্রা।

এখন সেই মাল্টিমিডিয়া জার্নালিজমের আপডেট ভার্সন হিসেবে মোবাইল জার্নালিজমের স্বর্ণযুগ চলছিল। এটা সাংবাদিকতার জন্য খুশির খবর হলেও এই খুশি বেশিদিন টিকছে না। টিকছে না মানে,অলরেডি সেই খুশি হারিয়ে গেছে। কারণ এখন রেবটিক জার্নালিজমের দাপট শুরু হয়েছে পুরাদমে।

করোনাভাইরাস মহামারির কারনে হঠাৎ করেই সাংবাদিকতার যুগ পাল্টে দিচ্ছে রোবটিক জার্নালিজম। রোবটিক সাংবাদিকতার ব্যাপক প্রসার ঘটতে হয়তো আরো ৫ বছর সময় লাগতো। কিন্তু করোনাভাইরাসের কারনে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সের যে কদর বেড়েছে,সেই কারনেই অগাম রোবটিক জার্নালিজম চালু হয়ে গেছে।

রোবটিক সাংবাদিকতা নিয়ে সবচেয়ে জোরালো পরীক্ষা নিরীক্ষা শুরু হয়েছিল গত ৫ বছর আগে থেকে। ২০১৭ সালের চীনের রোবট নিউজ প্রেজেন্টার ব্যাপক সাড়া ফেলেছিল সারা দুনিয়ায়। এরপর স্পোর্ট রিপোর্টার এবং যুদ্ধ সাংবাদিকতার জন্য রোবট উদ্ভাবনের চেষ্টা করছিলেন রোবট ইঞ্জিনিয়াররা। কিন্তু এতো তাড়াতাড়ি রোবটেরা মানুষের মত বিশ্লেষণমুলক কলাম লেখা শুরু করবে, সেই ধারনাটা করার সুযোগই পায়নি জার্নালিজমের রথি মহারথিরা।

এখন কথা হচ্ছে রোবটিক জার্নালিজম শুরু হলে মানব সাংবাদিকতার কি পরিনতি হবে ? রোবটরাই যদি সাংবাদিকতা শুরু করে,রোবটরাই যদি বুদ্ধিজীবী হয়ে পত্রিকার কলাম লেখা শুরু করে, তাহলে এখনকার বুদ্ধিজীবী সাংবাদিকরা কী করে খাবে ?

এইটা একটা কোটি টাকার প্রশ্ন। জটিল এই প্রশ্নের উত্তর সহজে দেওয়াও খুব মুশকিল। এবিষয়ে মানব সাংবাদিকদের চাকরি বাঁচানোর একটা পথ নতুন রোবট সাংবাদিক জিপিটি-৩।

আগামী কাল আমরা সেই রোবটের কাছ থেকেই শুনবো,তাদের কারনে মানব সাংবাদিকদের চাকরি হারিয়ে পথে বসতে হবে কি না।

এফ শাহজাহান, ডিরেক্টর  ,স্কুল অব জার্নালিজম

( ফেসবুক থেকে সংগ্রীত)

Mob: ০১৭১১-৩৬৬২৯৮, ০১৮১২-৫৫০৮৭৭

ই-মেইল mushanews2011@gmail.com




সম্পাদক ও প্রকাশক: মো: মোছাব্বর হাসান মুসা।

নির্বাহী সম্পাদক
ইমরানুল হাসান (বি এ অনার্স) ম‍্যানেজমেন্ট।

বার্তা সম্পাদক: মো:জাকারিয়া হাসান।

মহিলা সম্পাদিকা: মোনিকা আক্তার মালা।

অফিস: হোল্ডিং#৩৫৯,রোড# ৮/২ মধ‍্য সরদারপাড়া, দুপচাঁচিয়া, বগুড়া।