dannews24 | logo

৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

বগুড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে টিএমএসএসের ড. হোসনে আরা বেগম ও জেলা জজ সাঈদের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ করলেন সার্জেন্ট অবঃ গোলাম রব্বানী

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২০, ১৩:৩০

বগুড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে টিএমএসএসের ড. হোসনে আরা বেগম ও জেলা জজ সাঈদের বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ করলেন সার্জেন্ট অবঃ গোলাম রব্বানী

বিমান বাহিনীর অবসর প্রাপ্ত সার্জেন্ট ও পুন্ড্র ইউনিভার্সিটি অব সায়েন্স এ্যান্ড টেকলজি বগুড়া ট্রাস্ট এর ভাইস চেয়ারম্যান দাবিদার মোঃ গোলাম রব্বানী এক সংবাদ সম্মেলনে বগুড়ার সাবেক জেলা জজ ( অবঃ) আ, ম, মোঃ আবু সাঈদের বিরুদ্ধে টিএমএসএস এনজিওর প্রধান বেগম হোসনে আরার পক্ষ হয়ে গুরুতর অসদাচরনের অভিযোগ এনেছেন।


শনিবার দুপুরে বগুড়া প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি তার লিখিত বক্তব্যে বলেন , বেসরকারি পুন্ড্র ইউনিভার্সিটির মালিকানা নিয়ে দ্বন্দের জেরে ২০১৫ সালের মে মাসে হোসনে আরা বেগম তার এনজিও কর্মিদের দিয়ে তার নামে লালমনিরহাট , কুড়িগ্রাম,গোবিন্দগঞ্জ,গাইবান্ধা, ময়মনসিংহ ও বগুড়া সহ দেশের অন্যান্য জেলায় মোট ১৪টি আদালতে একই অভিযোগের পৃথক পৃথক বাদীত্বে হয়রানি মুলক মামলা করান।


মামলার সমন পেয়ে বগুড়ার বাইরের সবকটি আদালতে দাঁড়িয়ে জামিন চাইলে প্রত্যেকটি আদালত তাকে জামিন প্রদান করেন। তবে বগুড়ার তৎকালীন জেলা ও দায়রা জজ জনাব আ ম মো আবু সাঈদ তার জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়ে দেন। ৬ মাস কারাবাসের পর ড. হোসনে আরার ( যিনি তার বিরুদ্ধে চলমান মামলাগুলোর কোনটিরই বাদী নন ) সাথে আপোষের শর্তে ওই বছরের ডিসেম্বর মাসে উক্ত জেলা জজ তার জামিনের আবেদন মঞ্জুর করেন। তবে জামিন পেয়েও তিনি কারামুক্তি পাননি যা রহস্য জনক ।

৩ ডিসেম্বর উক্ত জেলা জজ তার পক্ষের আইনজীবী এ্যাডভোকেট আব্দুল কাদের মজনুকে সংগে নিয়ে বগুড়া কারাগারে প্রবেশ করে কারাগারের কেস টেবিলে বসে ড. হোসনে আরার অনুকুলে তৈরী করা একটি এক তরফা আপোষ নামায় সই জোর পুর্বক স্বাক্ষর গ্রহন করেন।


১ ডিসেম্বর জামিন পেলেও ১৭ তারিখে তিনি তারা ফটক থেকে মুক্তি পান । মুক্তি পাওয়ার তিনি শারীরীক মানষিক ভাবে সুস্থ্য হয়ে তার বিরুদ্ধে কৃত অবিচার অনাচার দুর্নীতির প্রতিকার চেয়ে মাননীয় প্রধাণমন্ত্রী, মহামান্য রাষ্ট্রপতি ,স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী ,দুর্নীতি দমন কমিশন, প্রত্যেকটি গোয়েন্দা সংস্থা বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। দুদক কর্তৃপক্ষ তার অভিযোগের প্রাপ্তি স্বীকার পত্র দিয়ে প্রতিকারের আশ্বাস দিলেও পরবর্তি কোন অগ্রগতি আর জানতে পারেননি।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন , সরকারের সাম্প্রতিক দুর্নীতি বিরোধি এ্যাকশানে উৎসাহিত হয়ে তিনি শাহেদ , সাবরিনাদের অনুরুপ ড. হোসনে আরা ও বগুড়ার সাবেক জেলা ও দায়রা জজ মোঃ আবু সাঈদের বিরুদ্ধে আনিত আমার অবিযোগ গুলোর যথাযথ তদন্ত ও প্রতিকার দাবি করছি ।




About Us

COLORMAG
We love WordPress and we are here to provide you with professional looking WordPress themes so that you can take your website one step ahead. We focus on simplicity, elegant design and clean code.