dannews24.com | logo

১৪ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ৩০শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

মিঠাপুরে শিক্ষকের বিরুদ্ধে খামারে বিষ প্রয়োগের মিথ‍্যা অভিযোগ

প্রকাশিত : সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২০, ০৯:৪৪

মিঠাপুরে শিক্ষকের বিরুদ্ধে খামারে বিষ প্রয়োগের মিথ‍্যা অভিযোগ

Spread the love

মোনারুল ইসলাহ রংপুর থেকেঃ

রংপুর জেলার মিঠাপুকুর উপজেলার ৯ নং ময়েনপুর ইউনিয়নে বাদী মো: গোলাম মোস্তফা (৩০) পিতা- মো: আ. মজিদ। সাং ময়েনপুর কদমতলা (পাইকারপাড়া)। বাদী গত ১৯|০৯|২০২০ ইং তারিখে তার একবিঘা একটি মাছের খামারে
১| মো: আনোয়ার হোসেন (৪২) শিক্ষক ( পশ্চিম সরকারি বালিকা প্রাথমিক বিদ‍্যালয়।
২| সাইফুল ইসলাম (৫৫) সহকারী প্রধান শিক্ষক ( ময়েনপুর কদমতলা উচ্চ বিদ‍্যালয়।
৩| মো : আশিকুর রহমানসহ
তিন জনের নামে বিষ প্রয়োগের মিথ‍্যা মামলা দায়ের করেন।

গত ২৩|০৯|২০২০ ইং তারিখে দুপুর ২ ঘটিকায় মিঠাপুকুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: আমিরুজ্জামান ও ৯নং ময়েনপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: মাহবুব আলমের নির্দেশে চারজন ইউপি সদস‍্য ও তদন্তকারী অফিসার তার সহযোগিসহ ঘটনা স্থল পরিদর্শনে গেলে কোন সত‍্যতা পাওয়া য়ায়নি।

এলাকাবাসির ভাষ‍্য, মো: হাসানুজ্জামান বলেন, আমার পুকুর আর বাদীর পুকুরের সাথে তিনটি পুকুরের পানি সংযোগ আছে। পুকুরে বিষ প্রয়োগ করা হলে আমার পুকুর সহ সব পুকুরের মাছ মারাযেত কিন্তু আমার সহ বাকী পুকুরগুলোর একটিঠ মাছও মরেনি। আমি মনে করি এটি একটি মিথ‍্যা অভিযোগ।

মুন্ছুর আলী বলেন, যে রাতে পুকুরে বিষ পয়োগের উল্লেখ আছে সেই রাতেও আমি হাসানের পুকুর নিয়মিত পাহারা দেই কিন্তু আমি কোন মারামারি, চিৎকার ও কোন দুর্ঘটনা দেখিনি বা কেউ আমাকে কিছু বলেনি।

উপস্থিত পুকুরের নিকটবর্তী এলাকাবাসী বলেন এই অভিযোগটি সম্পূর্ণ মিথ‍্যা ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত। এজাহারে উল্লেখিত আসামীদের সাথে বাদীর পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পতিপক্ষকে ঘায়েল করার জন‍্য বাদীর এ অপচেষ্টা। আমরা সবাই এই ঘটনা নিয়ে আতঙ্কিত আছি।

উক্ত ঘটনার পর্যবেক্ষণ ও পযালচনা করে উক্ত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও মেম্বারগণ ঘটনাটি মিথ‍্যা ও বানোয়াট প্রমাণিত হলে তাহারা তদন্তকারী অফিসারের নিকট প্রত‍্যয়নপত্র প্রদান করেন।

এ বিষয়ে বিবাদী মো: সাইফুল ইসলাম ও আনোয়ার হোসেন বলেন, আমাদের ও আমাদের পরিবারকে ঘায়েল করার জন‍্য একের পর এক মিথ‍্যা অভিযোগ করে আসতেছে। তারা এসব থেকে পরিত্রান চেয়েছেন।

এ বিষয়ে মামলার তদন্তকারী অফিসার মি. টংক ব‍্যানার্জীকে তদন্ত সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন বিষয়টি সুষ্ঠ তদন্ত করে আইনানুগ ব‍্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

Facebook Comments

অফিস: হোল্ডিং#৩৫৯,রোড# ৮/২ মধ‍্য সরদারপাড়া, দুপচাঁচিয়া, বগুড়া।




সম্পাদক ও প্রকাশক: মো: মোছাব্বর হাসান মুসা।

নির্বাহী সম্পাদক
ইমরানুল হাসান (বি এ অনার্স) ম‍্যানেজমেন্ট।

 

বার্তা সম্পাদক: মো:জাকারিয়া হাসান।

মহিলা সম্পাদিকা: মোনিকা আক্তার মালা।