dannews24.com | logo

১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

আজ নাকি বিশ্ব পুরুষ দিবস

প্রকাশিত : নভেম্বর ১৯, ২০২০, ২৩:১৫

আজ নাকি বিশ্ব পুরুষ দিবস

পুরুষ জীবন

আজ নাকি বিশ্ব পুরুষ দিবস। নানান আলাপে নিউজ ফিড ভরে উঠছে। পড়ছি, দেখছি আর বহুল প্রচারিত নাটকের একটি সংলাপ মনে করছি। সেটাই আপনাদের বলি।
এক বাবাকে প্রশ্ন করা হলো পুরুষ জীবন কেমন?
উনি উত্তর না দিয়ে একটা গল্প বললেন।

 

 

গল্পটা হলো এমন…..
সৃষ্টির পরে সৃষ্টিকর্তা মিটিং এ বসলেন প্রানীকুলের সাথে। প্রথমেই কথা বললেন গাধার সাথে। বললেন, তোমার কাজ সারাদিন প্রানান্ত পরিশ্রম করা। সারাজীবন পিঠে ভারি বোঝা বইতে হবে, খেতে হবে শুধু ঘাস। আর তোমার মাথায় কোন বুদ্ধি থাকবে না। তোমার আয়ু হবে পঞ্চাশ বছর। গাধা করজোড়ে সৃষ্টিকর্তা কে বললো, আমি এতো বছর বাঁচতে চাইনা, আমাকে বিশ বছর আয়ু দেয়া হোক। সৃষ্টিকর্তা বললেন তাই হবে।

এবার সামনে আসলো কুকুর। সৃষ্টিকর্তা তাকে বললেন, তুমি হবে মানুষের পরম বন্ধু। পাহারাদার। কিন্তু তুমি খাবে মানুষের ছেড়ে ফেলে দেয়া উচ্ছিষ্ট। তোমার আয়ু হবে তিরিশ বছর। কুকুর এবার করজোড়ে বললো, আমি এতো বছর বাঁচতে চাইনা। আমাকে পনেরো বছর আয়ু দেয়া হোক। সৃষ্টিকর্তা বললেন, তাই হোক।

এবার সামনে আসলো বানর। তাকে বলা হলো, তুমি শুধু এঢালে ওডালে ঝুলে বেড়াবে আর নানা রকম ফন্দি ফিকির করে সকলকে আনন্দে রাখবে। তোমার আয়ু হবে বিশ বছর। বানর বললো, আমি এতো বছর বাঁচতে চাইনা। আমাকে দশ বছর আয়ু দেয়া হোক। সৃষ্টিকর্তা বললেন, তাই হোক।

এবার সামনে আসলো পুরুষ। সৃষ্টিকর্তা বললেন, তুমি হলে প্রানীকুলে শ্রেষ্ট। তুমি হবে বুদ্ধিমান ও বিচক্ষণ। তাই তোমার আয়ু হবে বিশ বছর। পুরুষ তখন বললো, হে আমার সৃষ্টিকর্তা, এতো বিচক্ষণ আর বুদ্ধি নিয়ে মাত্র বিশ বছর!!! তারচে আপনি আমাকে গাধার ফেলে দেয়া তিরিশ বছর, কুকুরের ফেলে দেয়া পনেরো বছর আর বানরের ফেলে দেয়া দশ বছর দান করুন। সৃষ্টিকর্তা শুনে হাসলেন আর বললেন, তবে তাই হোক।

এরপর সবাইকে পৃথিবীর বুকে পাঠানো হলো। সবাই যার যার জীবন যাপন শুরু করলো।

ঝামেলা হলো পুরুষের বেলায়। কারন তার জীবনের প্রথম বিশ বছর কাটে সেরা, বিচক্ষণ হয়ে, পরের তিরিশ বছর কাটে গাধার খাটুনি খেটে সংসার নামক গাড়ি চালাতে, পরের পনেরো বছর কাটে কুকুরের মতো এর ওর আশ্রয়ে উচ্ছিষ্ট খেয়ে, আর শেষ দশ বছর বানরের মতোন। এর কাছে ওর কাছে নানা ধরনের ফন্দি ফিকির করে অন্যদের আনন্দ দিয়ে।
এটা নিছকই একটা গল্প। নিশ্চয় আমাদের, আমাদের বাবাদের জীবন এমন ছিলোনা কল্পনা করুন, ভালো লাগবে।

সকল দিনই মানুষের জন্য ভালোবাসাময় হয়ে উঠুক। জগতের সকল প্রানী সুখী হোক…..
তুহিন আফসারী
উন্নয়ন কর্মী

অফিস: হোল্ডিং#৩৫৯,রোড# ৮/২ মধ‍্য সরদারপাড়া, দুপচাঁচিয়া, বগুড়া।




সম্পাদক ও প্রকাশক: মো: মোছাব্বর হাসান মুসা।

নির্বাহী সম্পাদক
ইমরানুল হাসান (বি এ অনার্স) ম‍্যানেজমেন্ট।

 

বার্তা সম্পাদক: মো:জাকারিয়া হাসান।

মহিলা সম্পাদিকা: মোনিকা আক্তার মালা।