dannews24.com | logo

১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ | ৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

আত্রাইয়ে অবৈধভাবে বিক্রয় হচ্ছে গ্যাস সিলিন্ডার

প্রকাশিত : নভেম্বর ২২, ২০২০, ২২:৪৫

আত্রাইয়ে অবৈধভাবে বিক্রয় হচ্ছে গ্যাস সিলিন্ডার

নওগাঁ প্রতিনিধিঃ নওগাঁর আত্রাই উপজেলায় অবৈধভাবে বিক্রি হচ্ছে গ্যাস সিলিন্ডার। এসব গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রয় করতে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তার ব্যবস্থা, নিয়ম-নীতি এবং প্রশাসনের কোন প্রকার অনুমতি ছাড়াই উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে অবাধে বিক্রি করা হচ্ছে এই গ্যাস সিলিন্ডার। নিয়ম অনুসারে গ্যাস সিলেন্ডার বিক্রিয় ও মজুদ স্থানে পর্যাপ্ত আলো বাতাসের প্রয়োজন হয়।

প্রয়োজন হয় পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার‌ও। এ ক্ষেত্রে ফায়ার সার্ভিস লাইসেন্স, জ্বালানি দপ্তরে লাইসেন্স, প্রতিষ্ঠান অগ্নি নির্বাপক যন্ত্র সহ পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্র নেওয়ার বিধান রয়েছে। কিন্তু এ নিয়ম এখানে মানা হচ্ছে না। ফলে বাড়ছে দুর্ঘটনার ঝুঁকি।

বিস্ফোরক অধিদপ্তর এর নিয়ম অনুযায়ী খুচরা দোকানে সিলিন্ডার বিক্রয়ের জন্য সর্বোচ্চ ১০ টি গ্যাস সিলিন্ডার রাখা যায়। ১০ টির বেশি গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি করতে হলে, বিস্ফোরক অধিদপ্তর এর লাইসেন্স বাধ্যতামূলক। কিন্তু অত্রাই উপজেলার সিলেন্ডার বিক্রি করার নিয়ম নীতি না মেনে গ্যাস বিক্রি করছে প্রায় ১২০ টি প্রতিষ্ঠান। এর মধ্যে লাইসেন্স আছে মাত্র ১৭টি প্রতিষ্ঠানের।

উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজার সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, মুদির দোকান, ফ্লেক্সিলোডের দোকান, প্লাস্টিক সামগ্রীর দোকান, টিনের দোকান, ফোন-ফ্যাক্সের দোকান, স্যানিটাইজার এর দোকান, চায়ের দোকানে সহ বাজারে বিভিন্ন দোকানে এসব এলপি গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি হচ্ছে। কোথাও কোথাও পুরাতন সিলিন্ডারে গ্যাস বিক্রি করতেও দেখা গেছে। কোথাও আবার জনবহুল আবাসিক এলাকায় ঝুঁকিপূর্ণভাবে এসব ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে কেউ কেউ।

উপজেলার বিভিন্ন স্থানে এ সকল গ্যাস বিক্রেতাদের সাথে কথা বললে, তারা বলেন আমরা অনেকদিন ধরেই সিলিন্ডার বিক্রি করে আসছি। কিন্তু অনুমোদন বা লাইসেন্স ব্যাপারে আমাদের কিছুই জানা নেই।

এ ব্যাপারে উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর কর্মকর্তা নিতাই ঘোষ বলেন, আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন হাট বাজারে গিয়ে ব্যবসায়ীদের প্রশিক্ষণের পাশাপাশি লাইসেন্স এবং ফায়ার সার্ভিস সেফটি নেওয়ার বিষয়ে বলে থাকি। এবং যাদের লাইসেন্স এবং প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ছাড়া গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি করছে তাদের আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

উপজেলায় দৈনিক গড়ে ৫ হাজার সিলিন্ডার বিক্রয় হচ্ছে। ফায়ার সার্ভিসের তথ্য মতে ১১ মাসে ৫টি গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে

অফিস: হোল্ডিং#৩৫৯,রোড# ৮/২ মধ‍্য সরদারপাড়া, দুপচাঁচিয়া, বগুড়া।




সম্পাদক ও প্রকাশক: মো: মোছাব্বর হাসান মুসা।

নির্বাহী সম্পাদক
ইমরানুল হাসান (বি এ অনার্স) ম‍্যানেজমেন্ট।

 

বার্তা সম্পাদক: মো:জাকারিয়া হাসান।

মহিলা সম্পাদিকা: মোনিকা আক্তার মালা।